সেরা লিঙ্ক বিল্ডিং স্ট্রাটেজি গাইডলাইন

বর্তমানে এসইও অপটিমাইজারদের সবথেকে বেশি কোয়ারি পড়ে লিঙ্ক বিল্ডিং এর উপর। কারন সার্চ ইঞ্জিনগুলো প্রতিনিয়ত এত বেশি প্রতিবন্ধকতার মধ্যে ফেলে দিচ্ছে, যে লিঙ্ক বিল্ডিং করতে যেয়ে অপটিমাইজাররা হিমশিম খাচ্ছেন। অপটিমাইজার আসলে কোন প্রসেসে এগুলে সার্চ ইঞ্জিন এর নিতিমালার ভিতরে থাকবে সেটা বুঝে উঠতেই পারছে না। যার ফলে সার্চ ইঞ্জিন আপডেটগুলোতে অনেক সাইট র‍্যাঙ্ক থেকে পড়ে যাচ্ছে ।

আপনিও নিশ্চয় এসেছেন আমার লেখা পড়তে এই ভয় কাটিয়ে উঠতে। অর্থাৎ আপনার কি-ওয়ার্ড কে সঠিক উপায়ে লিঙ্ক বিল্ডিং করতে । হ্যাঁ, আপনি হয়ত ভুল যায়গাতে আসেন নি। আপনি যেন সঠিকভাবে এগিয়ে যেতে পারেন সেইজন্যই আমার আজকের লেখা।

[sociallocker]

সতর্কবাণীঃ যারা ব্যাকলিঙ্ক লিস্ট বা ডিরেক্টোরি লিস্ট  ব্লা, ব্লা, ব্লা, ব্লা ……………  খুজতে আসছেন, তাদের জন্য আমার এই লেখাটি  না।  সুতরাং এই ধরনের চিন্তা করে থাকলে এখনি ব্রাউজার থেকে ট্যাবটি ক্লোজ করে দিন। সঠিক এবং ন্যাচারাল পদ্ধতিতে এগুতে হবে। ভালো কিছু পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই কষ্ট করতে হবে।

ফিভার ব্লগ ব্যাকলিঙ্কঃ

এসইও গিগের জন্য যদি বলি তবে ফিভার একটা নোংরা যায়গা তা হয়ত আমার লেখার পড়ার পূর্বে পয়েন্টটা দেখেই নিজে আপনি ধারনা করে নিয়েছেন। ফিভারে ৯৯% এসইও গিগগুলা ফ্রড। কিন্তু এর ভিতর থেকে আপনি ১% গিগকে পাবেন যারা আপনার আসল চাহিদা পুরনে সক্ষম।

ফিভার থেকে যখন আমি ব্যাকলিঙ্ক  গিগ ক্রয় করি,তখন আমি শুধুমাত্র একধরনের গিগ খুজি সেটা হচ্ছে,  কে আসলে   আমাকে কন্টেস্টচুয়াল লিঙ্ক দিবে তার সাইট থেকে। কোন ধরনের লিঙ্ক হুইল, লিঙ্ক পিরামিড বা লিঙ্ক  হেগসাগোন এর কোন ধরনের সার্ভিস কিনি না।

কনটেন্ট প্রোভাইড করবেন আপনি নিজে। কারন আপনি জাস্ট কন্টেস্টচুয়াল ব্যাকলিঙ্ক ক্রয় করেছেন। সুতরাং,

  • আপনাকে গেস্ট পোস্টিং গাইডলাইন ফলো করতে হবে না।
  • আপনি নিজের মত করে আপনার কি-ওয়ার্ড অপটিমাইজ করতে পারবেন কনটেন্ট এর মধ্যে।
  • কনটেন্ট এর মধ্যে আপনি লিঙ্ক দিতে পারবেন আপনার মত করে।
  • এবং আপনার পোস্টটি সার্ভিস অনুযায়ী পাবলিশ হয়ে যাবে। অর্থাৎ পেন্ডিং-এ থাকার কোন ঝামেলা নাই।

তাই কনটেন্ট নিজে দেওয়ার চেষ্টা রাখবেন। কিন্তু এখন কীভাবে খুজবেন ফিভারে সেইসব গোল্ডেন গিগগুলা ? আমি কিছু সার্চ ফিল্ড দিয়ে দিচ্ছি, আসা করি পেয়ে যাবেন।


“I will post your content”

“guest post on my”

“I will post your article”


ডাইরেক্টরি ডোমিনেশনঃ

আমি বেশিরভাগ সময় খেয়াল করেছি। সবাই বলছে ডিরেক্টরি মারা গেছে। হ্যাঁ, সবার কথা যুক্তি আছে। কারন একটা নিউজ এসেছিল যে গুগল ১০০ ডিরেক্টরিকে ডি-ইন্ডেক্স করে দিছে। কিন্তু আসলে কি সার্চ ইঞ্জিন  ডিরেক্টরিগুলো কে হত্যা করেছে।

উত্তরঃ না, ডিরেক্টরি বেচে আছে !!

এটা আমার ব্যাক্তিগত এক্সপেরিএন্স থেকে বলছি। যদি আপনি সঠিক ডিরেক্টরিগুলোতে সাবমিট করেন তবে সেটা আপনার সাইট এর জন্য কাজ করবে। কারন ওয়েব ডিরেক্টোরি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন জগতের একটি পুরনো একটি পদ্ধতি।

ফ্রী ডিরেক্টরি পেইড ডিরেক্টরি
R-TT DirectoryMOZ Directory
So MuchBusiness.com Directory
Directory WorldFamily Friendly Sites

হ্যারোঃ

হ্যারো একটি বেষ্ট পদ্ধতি, যেখান থেকে আপনি কিলার ব্যাকলিঙ্ক পেটে পারেন অথোরিটি নিউজ সাইট থেকে। যে প্রসেসে হ্যারো থেকে ব্যাকলিঙ্ক পাবেনঃ

  • রেজিস্ট্রেশন করুন হ্যারোতে
  • প্রতিদিন আপনি ৩ টা মেইল পাবেন রিপোর্টার এর কাছ থেকে। নিচের ছবি থেকে দেখে নিতে পারেন।

HARO-Example

  • রেসপন্স করেন আপনার ক্রেডিট সহ। তবে অবশ্যই যেন তথ্যবহুল হয়। পূর্বে থেকে সেভাবে প্রস্তুতি নিয়ে নিবেন।
  • আপনি রেসপন্স করার পর, রিপোর্টার একটা লিঙ্ক এর সাথে সেটি পাবলিশ করবে।

বিঃদ্রঃ যদি এই স্ট্রাটেজি তে কাজ করেন তবে চালিয়ে যেতে থাকবেন। ঘুমিয়ে পড়বেন না। কারন এটি একটা মারাত্মক ব্যাকলিঙ্ক বিল্ড করতে আপনাকে সাহায্য করবে। যা আপনার ভাবনার বাইরে

টেস্টিমনিয়াল বা প্রশংসাসমূহঃ

যেকোনো বড় অথবা ছোট কোম্পানি সর্বদা চায় তার কাস্টমারের ভালবাসা অথবা টেস্টিমনিয়াল। যদি আপনি কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস আপনার ব্যবহার করেন, এবং সেটা যদি আপনার যদি ভালো লাগে তবে আপনি তাদেরকে আপনার টেস্টমনিয়াল দিন।

testimonial-link

যখন আপনি আপনার টেস্টমনিয়াল দিবেন তখন সত্যতা প্রকাশের জন্য তারা আপনার সমস্ত তথ্য দিবে। যাতে করে অন্যান্য কাস্টমাররা বুঝতে পারে যে, একটি সঠিক ব্যাক্তির কাছ থেকে টেস্টমনিয়াল নেওয়া হয়েছে। সুতরাং আপান্র কাছে কোন ধরনের জিজ্ঞাসা করা ছাড়াই তারা আপনার ওয়েবসাইট তাদের টেস্টমিনিয়াল সেকশনের অ্যাড করে দিবে।

সাধারণত লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন টেস্টমনিয়ালগুলো সাইট এর হোম পেজে দেওয়া থাকে। সুতরাং আপনি যদি টেস্টমনিয়াল দেন তবে যে হোম পেজ থেকে একটা পাওয়ারফুল ব্যাকলিঙ্ক পাবেন। সাধারণত আমি যখন কোন অথোরিটি সাইটে দেখি টেস্টমনিয়ালের সাথে লিঙ্ক দিচ্ছে, তখন ওই সাইট থেকে প্রোডাক্ট কিনে টেস্টমনিয়াল দেই। শুধু মাত্র ব্যাকলিঙ্ক পাওয়ার জন্য।

 ব্লগার রিভিউঃ

আপনার যদি কোন প্রোডাক্ট থাকে , যেমনঃ সফটওয়ার, থিম অথবা সার্ভিস দিয়ে থাকেন, তবে আপনার প্রয়োজন হবে হাইকোয়ালিটি ব্যাকলিঙ্ক। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার প্রয়োজন হবে ব্লগারদের রিভিউ। কিন্তু কিভাবে সম্ভব ?

হ্যাঁ, আপনি যদি একটু বুদ্ধি খাটান তবে খুব হাইকোয়ালিটি ব্যাকলিঙ্ক বের করে নিয়ে আসতে পারেন। কিভাবে কাজটি করবেন, নিচের ধাপটি ফলো করুনঃ

  • প্রথমে আপনাকে খুজে বের করতে হবে আপনার প্রোডাক্ট রিলেটেড ব্লগারদের। ধরলাম আপনার প্রোডাক্ট ” soap recipes”  এখন গুগলে এই ধরনের কি ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করুন।
  • একটা লিস্ট তৈরি করুন । অবশ্যই যেন অথোরিটি ব্লগ সাইট হয়। যেটা আপনাকে ভালো ব্যাকলিঙ্ক প্রোভাইড করতে পারেব।
  • এরপর তাকে একটি মেইল করুন। মেইল স্ক্রিপ্ট এর ধরনটি আমি নিচে দিয়ে দিলাম।

মেইল স্ক্রিপ্টঃ 


Hey (site owner name),

I was searching for some homepage soap recipes today when I came across (site name).

Awesome stuff!

Actually, I just launched a guide that teaches people how to make luxury soaps at home. I usually charge $X, but I’d be more than happy to send it over to you on the house. All I’d ask is that you’d consider mentioning it on your blog or writing a review.

Let me know how that sounds.

Cheers,

Your name


এখানে একটা জিনি লক্ষ্য করে দেখেন আমি তাকে আমার প্রোডাক্টটি দিয়ে তাকেই রিভিউ দিতে বলছি। সরাসরি তাকে ব্যাকলিঙ্ক দেওয়ার জন্য তাকে অনুরধ করি নাই। আর যদি আপনি তাকে ব্যাকলিঙ্ক এর জন্য অফার করতেন তবে ২ টা ক্ষতির সম্মুখীন হতেন, প্রথমত সে আপনাকে ইগ্নোর করত এই কারনে যে আপনি স্প্যাম করতে এসেছেন অর্থাৎ আপনার প্রোফিট এর জন্য এসেছেন । দ্বিতীয়ত, গুগল ওয়েবমাস্টার এর নীতিমালা  ভঙ্গের কারনে আপনার সাইট ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। সুতরাং আপনার কাজ আপনি সমাধান করবেন কিন্তু একটি বুদ্ধি খাটিয়ে।

দাতব্যসংস্থাতে ডোনেটঃ

সাধারণত দাতব্য যেসব সংস্থা রয়েছে তাদেরকে ডোনেট করলে তারা আপনাকে অনুমতি নিয়ে ম্যানশন করে থাকে। আর এই ধরনের সাইটগুলো করার ক্ষেত্রে অনেক ধরনের প্রমানাদি থাকার পর একটি দাতব্য সংস্থা হিসেবে অনলাইন জগতে নাম উঠে। সুতরাং একটি দাতব্য সংস্থা ওয়েবসাইট এর অথোরিটি যে হাই হবে তা পুনরায় ভাবার প্রয়োজন হয় না। তাই এই ধরনের ওয়েবসাইট থেকে যে আপনি ভালোমানের ব্যাকলিঙ্ক পেটে পারেন নিঃসন্দেহে ।

খুব বেশি যে আপনাকে ডোনেট করতে হবে তা কিন্তু নয়। ১০০-৫০০ ডলার পারবেন না ? খুবই ছোট অংকের বলে আমার মনে হয়। কি ভাবছেন, এই পয়েন্ট বাদ।

একটু দাঁড়ান ভাইয়া, মাত্র ১২ ডলার ডোনেট  করেই পেজ র‍্যাঙ্ক এর ৭ এর ওয়েবসাইট থেকে আমি ব্যাকলিঙ্ক পেয়েছি। সুতরাং টেনশন নেওয়ার কিছু নাই। ২টা লাভ হবে। এক আপনি দান করছেন। দুই আপনি একটা হাইকোয়ালিটির ব্যাকলিঙ্ক পাচ্ছেন। বলতে পারেন কোরবানির মত।

সার্চ ফিল্ডঃ


“donate to us”

“contributors page”

“sponsors page”

allintitle: “contributors”

allintitle: “sponsors”


অডিও শেয়ারিং সাইটঃ

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজাররা বেশিরভাগই এই পদ্ধতিটা ব্যবহার করে না। কিন্তু পাওয়ারফুল ব্যাকলিঙ্ক পাওয়ার জন্য এটি অন্যান্য সব পাওয়ারফুল পদ্ধতির একটি। আর এখান থেকে খুব সহজের সাইট এর জন্য ব্যাকলিঙ্ক পাওয়া যায়। বিভিন্ন ধরনের অডিও শেয়ারিং এর সাইটগুলোতে যেয়ে সেখানে কিছু অডিও অথবা আপনার রেকর্ড করা কিছু আপলোড করেন। সেখানে আপনার ওয়েবসাইট দেওয়ার জন্য যায়গা দিবে। এছাড়া খুব সহজেই এখান থেকে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে পারবেন। এবং অবশ্যই সেগুলো ডু-ফলো।

এখন বলেছি সেই চিন্তা করে যদি যেয়ে স্প্যাম করা শুরু করেন তবে শিউর থাকেন আপনার আইপি সহ আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যান করবে। সুতরাং সাবধান। সবকিছুই ন্যাচারাল করবেন।

কিছু অডিও সিটঃ


Reverbnation.com (PR6)

BandCamp.com (PR7)

YourListen.com (PR5)

NoiseTrade.com (PR5)


গুগল প্লাস প্রোফাইলঃ

আপনি কি জানেন আপনার গুগল প্লাস প্রোফাইল থেকে আপনি ডু-ফলো ব্যাকলিঙ্ক করতে পারবেন ? গুগল প্লাস থেকে আপনি পাওয়ারফুল ব্যাকলিঙ্ক পেতে পারেন। কখনও খেয়াল করেছেন আপনার গুগল প্লাস প্রোফাইলে কোন পেজ র‍্যাঙ্ক পাইছে কি না ? এখানে মার্ক কিউবান এর পেজ র‍্যাঙ্ক -৩!!!  সুতরাং গুগল প্লাস প্রোফাইলের প্রতি একটু নজর দিন। অনেক বেশি বেনিফিটেড হবেন।

.EDU ব্যাকলিঙ্ক রিসোর্সঃ

আমরা সবাই জানি যে .EDUব্যাকলিঙ্ক লিঙ্ক বিল্ডিং এর জন্য মারাত্মক একটি পদ্ধতি। কিন্তু এই ব্যাকলিঙ্ক বিল্ড করা খুবই কষ্টের একটা ব্যাপার। এটা আমরা সবাই জানি। কিন্তু একটু যদি টেকনিক্যালি আমি চেষ্টা করেন তবে আমি মনে করি এই ব্যাকলিঙ্ক খুব সহজেই পেতে পারেন। এবং খুব ভালো লিঙ্ক জুসও পাবেন।

কিভাবে পাবেন ? সেটাই এখন প্রশ্ন। আপনি যদি .EDU ওয়েবসাইটে ভিজিট করেন তাহলে দেখতে পারবেন, ওইসব ওয়েবসাইটগুলোতে তাদের ছাত্রদেরজন্য কিছু হেল্পফুল রিসোর্স দিয়ে থাকে। আপনি ওই রিলেটেড একটি কনটেন্ট লিখে .EDU সাইট এর অথোরিটিকে মেইল এর মাধ্যমে জানান আপনার রিসোর্স লিঙ্ক সহ। তারা যদি আপান্র লেখা হেল্পফুল মনে করে তবে আপনার ক্যাম্পেইন সাকসেস।

অনেক সাইট আপনার লিঙ্ক এপ্রুভ করবে না, তার জন্য যে এই পদ্ধতি টা বাদ দিবেন সেটা হবে সবথেকে বড় ভুল। আপনি যদি ৭-৮ টা সাইট থেকে বের করতে পারেন। তবে আপনার ক্যাম্পেইন সাকসেস। আপনার সাইট এর ব্যাকলিঙ্ক দেখবেন মারাত্মকভাবে প্রভাব ফেলবে মাত্র এই ৭-৮ টি ব্যাকলিঙ্ক থেকে।

সার্চ ফিল্ডঃ 


site:.edu “your keyword”

site:.edu “your keyword” + “resources”

site:.edu: “your keyword” + inurl:links

site:.edu: “your keyword” + “other sites”


সাবমিট ওয়েবসাইট ফিডব্যাক সাইটঃ

সার্চ করলে আপনি কয়েকহাজার ওয়েবসাইট পাবেন যেখানে আপনি আপনার সাইট এর ডিজাইন বা লে-আউট এর ফিডব্যাক নিতে পারবেন। যদি এইসব ফিডব্যাক সাইটগুলোতে সাবমিট করেন, তবে তারা আপনাকে ডু -ফলো ব্যাকলিঙ্ক প্রোভাইড করবে।

কিছু ফিডব্যাক সাইট লিস্টঃ 


ConceptFeedback.com (PR3)

BounceApp.com (PR5)

SuggestionBox.com (PR4)

Criticue.com (PR3)


মুভিং ম্যান পদ্ধতিঃ

এটা একটা সুন্দর পদ্ধতি ব্যাকলিঙ্ক পাওয়ার জন্য। আপনি এখান থেকে  এ-গ্রেড কন্টাক্টচুয়াল ব্যাকলিঙ্ক পাবেন। কিভাবে এগুবেন? নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুনঃ

  • খুজে বের করুন পুরানো সাইটগুলো। যেগুলো আসলে এখন আর অনলাইনে বিজনেস করছে না। অনেক ওয়েবসাইট আছে যারা রিসোর্স হিসেবে ওইসব পুরানো বিজনেসগুলোর সাইটকে লিঙ্ক করে থাকে। আপনি ওইসাইটগুলো বের করুন। নিচের সার্চ ফিল্ড দিয়ে বের করে নিন।

সার্চ ফিল্ডঃ 


“keyword” + “out of business”

“keyword” + rebrand”

“keyword” + “has moved”


  • এবার ওইসব সাইট গুলো আসলে কোথায় লিঙ্ক করা আছে খুজে বের করুন। বিভিন্ন ধরনের ব্যাকলিঙ্ক চেকার টুলস দ্বারা। এবং সাইটগুলো লিস্ট করুন।
  • এবার আপনি যে সাইটগুলো বের করলেন তাদেরকে একটি জাঙ্ক মেইল করুন। এবং জানান যে আপনি যে সাইট এর লিঙ্ক করেছেন সেটা এখন আর বিজনেস করছেন না। সেই ক্ষেত্রে আপনি এই রিসোর্স লিঙ্কটী ব্যবহার করতে পারেন। যেভাবে মেইল করবেন।

জাঙ্ক মেইলঃ 


Hey NAME,

I was looking for information on TOPIC today when I stumbled onto your site.

I couldn’t help but notice that you were linking to OLD SITE. As you may have heard, they went out of business a few months back.

Actually, I have a guide on my site that’s really similar: URL.

Might make a nice replacement for the OLD SITE link.

Thanks,

YOUR NAME


গেস্ট পোস্টিং গিগ টুইটারেঃ

গেস্ট পোস্টিং কোথায় এপ্রুভ হয় বা না হয় এইটা নিয়ে আমাদের বেশ কনফিউশন থাকে। যার কারনে দেখা যায়, অনেকে একটা আর্টিকেল নষ্ট করতে চায় না। লিস্ট থেকে করলে আসলে এইরকম হওয়াটা স্বাভাবিক। সাধারণত লিস্ট থেকে করলে এই ধরনের সমস্যাতে পড়তে হয়।

কিন্তু যদি আপনি একটু বুদ্ধি করেন তবে খুব সহজেই ১ ঘণ্টা সময়ের ভিতর আপনি সঠিক গেস্ট পোস্ট সাইট খুজে বের করতে পারনে। আর সেটা টুইটারের মাধ্যমেই সম্ভব। কারন দেখা গেছে বেশিরভাগ ওয়েবসাইট তার পোস্টটি টুইটারে অটোম্যাটিক শেয়ার সিস্টেম চালু করে রাখে। আপনি একটু সার্চ করলেই সেইসব সাইট গুলো বের করে নিয়ে আসতে পারেন।

সার্চ ফিল্ডঃ 


“your niche” + guest post

“your niche” + guest author

“your niche” + write for us

“your niche” + guest article


ব্রোকেন লিঙ্কবিল্ডিংঃ

এই স্ট্রাটেজিটা মুভিং ম্যান পদ্ধতির সাথে কিছুটা সম্পৃক্ত। এটার প্রধান কাজ হল আপনার নিশ রিলেটেড ব্রোকেন লিঙ্ক খুজে বের করা। অর্থাৎ 4o4 পেজ খুজে বের করা। এই স্ট্রাটেজিতে যদি আপনি সাকসেস হতে পারেন, শিউর থাকেন পিএ এবং ডিএ কি পরিমান বেড়ে যাবে সেটা হয়ত আপনার ভাবনার বাইরে। নিচের সার্চ ফিল্ডটি ব্যবহার করে আপনি রিলেটেড নিশ ব্যবহার করে নেন।


সার্চ ফিল্ডঃ 

“fitness”  + “resource page”

“fitness” + “resources”

“fitness” + “recommended sites”

“fitness” + “links”


এইবার আপনি গুগল ক্রোম এর একটি এক্সটেনশন ব্যবহার করে ব্রোকেন লিঙ্কগুলো খুজে বের করে ফেলুন। ব্রোকেন লিঙ্কগুলো লাল ওয়াটার মার্ক করে দেখাবে। সেগুলো কালেক্ট করে সাইট এর ওয়েবমাস্টারদেরকে একটা জাঙ্ক মেইল পাঠান। সব মেইলের রেসপন্স পজেটিভ হয়ত পাবেন না। সেজন্য স্ট্রাটেজি বাদ দিবেন না। অনেক ওয়েবমাস্টার আছে যারা ব্রোকেন লিঙ্কটাকে কাজে লাগাতে আপনার রিসোর্স লিঙ্ক করে দিতে আগ্রহ প্রকাশ করবে। আমি স্যাম্পল একটি জাঙ্ক মেইল লেখা দিয়ে দিচ্ছি। আশা করি কনভেন্স হবে ।


Hi (site owner name),

I was just browsing around your resources page today, and among the lists of great resources, were some broken links.

Here’s a few of them:

URL1

URL2

URL3

Oh, and I have a website, mysite.com, that also regularly posts quality content related to whatever. If you think so too, feel free to post a link to it on your resources page.

Either way I hope this helps and keep up the good work!

Thanks,

(Your Name)


এই ছিল সেরা লিঙ্ক বিল্ডিং স্ট্রাটেজি গাইডলাইন। আশা করছি আপনার আপনি এখন থেকে লিঙ্ক বিল্ডিং খুব সহজেই করতে পারবেন সেই সাথে আপনার বিভিন্ন আপডেট থেকে সাইট কে রক্ষা করতে পারবেন। যদি আপনি আমার এই গাইডলাইন অনুযায়ী কাজ করেন। আর এই গাইডলাইন অনুযায়ী যদি আপনি সাকসেস হতে পারেন, তবে সেটা হবে আমার লেখার সার্থকতা। আমি আশাবাদী এই ব্যাপারে যে আপনারা এই স্ট্রাটেজি ফলো করে আপনার কি-ওয়ার্ড খুব সহজেই সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাঙ্ক করাতে পারবেন।

লেখাটি যত সহজে আপনি পড়লেন ততটা কষ্ট হয়েছে আমার লিখতে। তাই আপনাদের মতামত হইত আমাকে আরও বেশি অনুপ্রানিত করবে লেখার জন্য। আশা করছি আরও ভালো কিছু সামনে আপনাদেরকে দিতে পারব।

সবাই ভালো থাকবেন এবং সুস্থ থাকবেন এই প্রার্থনা করি। আমার জন্যও আপনারা দোয়া করবেন। দেখা হবে অন্য আরেকটা লেখাতে।  সেই পর্যন্ত সাথে থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

লেখাটি পূর্বে ওয়েবকোড ব্লগে প্রকাশিত 

[/sociallocker]

Comments

comments

Leave a Comment